আশুলিয়ার জননন্দিত চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম

আগের সংবাদ

পাওনা টাকা না পেয়ে কিশোরীকে আটকে রেখে দেড় মাস ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ৪

পরের সংবাদ

আশুলিয়ায় শ্রমিক লীগ নেতার বিরুদ্ধে সাংবাদিককে মারধরের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত :৬:৩১ অপরাহ্ণ, ১৬/১০/২০

আশুলিয়ায় বে-সরকারী সংবাদ মাধ্যম জাতীয় “দৈনিক সংবাদ দিগন্ত” পত্রিকার আশুলিয়া প্রতিনিধি সাংবাদিক মোঃ মাহাবুর রহমানকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে থানা শ্রমিক লীগ নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় হামলার শিকার ওই সাংবাদিক ৬জনের নাম উল্লেখসহ বেশ কয়েক জনকে অজ্ঞাত রেখে আশুলিয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

বৃহস্পতিবার ( ১৫অক্টোবর) বিকেলে আশুলিয়ার ইউনিক বাসস্ট্যান্ড এলাকায় জাগো বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের অফিসে মারধরের ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্তরা হল- থানা শ্রমিক লীগের সাবেক সভাপতি মোঃ আতিকুজ্জামান পাটোয়ারী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সানাউল্লাহ ভূইঁয়া সানি, শ্রমিকলীগ নেতা- শেখ আল-মামুন, মোঃ আশিক সরকার, বকুল আহম্মেদ ও মামুন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার বিকেলে সাংবাদিক মাহবুবুর রহমান ব্যক্তিগত কাজ শেষ বাইপাইল থেকে রিকশাযোগে গাজিরচট হাই স্কুলের উদ্দেশ্য রওনা হয়। পরে সে ইউনিক বাসস্ট্যান্ড এলাকায় পৌঁছালে মোঃ আশিক সরকার ও বকুল আহমেদ তার গতিরোধ করে তাকে চা খাওয়ার কথা বলে ইউনিক স্ট্যান্ডের পাশে মামুনের জাগো বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনে অফিসে নিয়ে যায়। সেখানে আগে থেকেই শেখ আল-মামুন ও মামুনসহ ৪জন বসে ছিলো। তারা শ্রমিকদের উস্কানি মুলক কথাবার্তা বলছিল, এমন সময় গোপন ক্যামেরা অন করলে, তারা বুঝতে পেরে তাকে মারধর করতে থাকে এবং তার কাছে থেকে মোবাইল ফোন কেড়ে নেয়। পরে হামলাকারীরা তাদের লিডার আতিকুজ্জামান পাটোয়ারী ও সানাউল্লাহ ভূইঁয়া সানিকে ফোন করে ডেকে নিয়ে আসে এবং সবাই মিলে তাকে মারধর করে। এরপর তাকে ৪ঘন্টা জোরপূর্বক আটককে রেখে ৩শত টাকার স্ট্যাম পেপার ও ভিডিও সাক্ষাৎকার রেখে ছেড়ে দেয়।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী সাংবাদিক বলেন, আমি খুব নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছি এই সন্ত্রাসী বাহিনী আমাকে মেরে ফেলার জন্য আবারও যে কোন সময় আমার উপর হামলা করতে পারে এবং আমার উপর যে হামলা হয়েছে তার সুষ্ট বিচারের দাবী করছি।

এ বিষয়ে আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক জসিম উদ্দিন জানান, এ সংক্রান্ত একটি অভিযোগ পেয়েছি এবং সাথে সাথে অভিযুক্তদের আটকের অভিযান পরিচালনা করা এবং তাদের আটক না করা পর্যন্ত অভিযান অব্যাহত থাকবে।