এই মুহূর্তে দিতে হবে না গ্যাস-বিদ্যুতের বিল

Print Friendly, PDF & Email

ন্যাশনাল ডেস্ক: চারিদিকে চলছে করোনা আতঙ্ক। বিদেশসহ দেশের অনক স্থান লক ডাউন হয়ে যাচ্ছে। সব মিলিয়ে এ এক অন্য রকম পরিস্থিতির মুখোমুখি বিশ্ব। কঠিন এ মুহূর্তে গ্যাস ও বিদ্যুতের বিল দিতে হবে না। শুধু তাই নয় সবাইকে ব্যাংকে না যাওয়ার নির্দেশনাও দিয়েছে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়।

রোববার (২২ মার্চ) জ্বালানি বিভাগের উপসচিব আকরামুজ্জামান স্বাক্ষরিত একটি চিঠি বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি) কাছে পাঠানো হয়।

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, ফেব্রুয়ারি থেকে মে—এই চার মাসের গ্যাসের বিল আগামী জুনে জমা দিতে হবে। এজন্য কোনো বাড়তি চার্জ দিতে হবে না।

অন্যদিকে, ফেব্রুয়ারি থেকে এপ্রিল মাস- এই তিন মাসের বিদ্যুতের বিল মে মাসে জমা দিতে বলা হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, আবাসিক গ্যাস বিল নির্ধারিত সময় জমা দিতে বিপুল পরিমাণ গ্রাহক ব্যাংকে এক সঙ্গে যাচ্ছেন। এতে করোনা ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা দেখা যাচ্ছে। তাই করোনাভাইরাস বা ‘কোভিড–১৯’ সংক্রমণ হওয়ার ঝুঁকি থেকে বাঁচতে সরকার ‘গ্যাস বিপণন নিয়মাবলি (গৃহস্থালি) ২০১৪’ শিথিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আবাসিক গ্রাহকেরা কোনো রকম বিলম্ব মাশুল বা সার চার্জ ছাড়াই ফেব্রুয়ারি, মার্চ, এপ্রিল ও মে মাসের গ্যাস বিল আগামী জুন মাসে সুবিধাজনক সময় জমা দিতে পারবেন।

এদিকে, বিদ্যুৎ বিভাগের আরেকটি চিঠিতে বলা হয়েছে, বিদ্যুতের আবাসিক গ্রাহকেরা বিভিন্ন ব্যাংক ও মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করে থাকেন। করোনাভাইরাসের সংক্রমণের ভয়ে গ্রাহকদের পক্ষে বিল পরিশোধ করা সম্ভব হবে না। ফেব্রুয়ারি, মার্চ ও এপ্রিল মাসের বিল কোনো রকম বিলম্ব মাশুল ছাড়া মে মাসে জমা নেওয়ার জন্য বিইআরসিকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here