আশুলিয়ায় এমএলএম প্রতারক চক্রের ১২ সদস্য গ্রেপ্তার

Print Friendly, PDF & Email

হাসান ভূঁইয়া, নিজস্ব প্রতিবেদক:

আশুলিয়ায় চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণার অভিযোগে এমএলএম প্রতারক চক্রের ১২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন (র‌্যাব-৪) এর একটি আভিযানিক দল। এ সময় প্রতারণার শিকার ১০৪ জন ভিকটিমকে উদ্ধার ও অফিসের বেশ কিছু মালামাল জব্দ করা হয়।

বৃহষ্পতিবার বিকেলে র‌্যাব-৪ (সিপিসি-২) নবীনগর ক্যাম্পে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ১২ প্রতারককে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেন কোম্পানী কমান্ডার মেজর শিবলী মোস্তফা। এর আগে বৃহষ্পতিবার সকাল ৯ টার দিকে আশুলিয়ার জামগরা এলাকার এনডিবি ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেডের অফিসে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করা হয়।

আটকরা হলেন- গাজীপুরের টঙ্গী এলাকার মেহেদী হাসান (৩০), বগুড়ার রায়হান (২৫), কক্সবাজারের জিসু কান্তি দে (২০), ঢাকার আশুলিয়ার মোঃ আকাশ (২২), দিনাজপুরের প্রদিপ (২১), সোহেল (২৫), মারুফ হোসেন (২৩), আরিফুল (২২), জয়ন্ত সরমা (২১), রায়হান (২০), শরিফুল ইসলাম (২২) ও রাজশাহীর আল আমিন (২২)।

র‌্যাব জানায়, আশুলিয়ার জামগড়া এলাকায় এনডিবি ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেড নামে একটি কোম্পানী দীর্ঘদিন ধরে সাধারণ মানুষদের চাকরি দেওয়ার কথা বলে প্রতারণার ফাঁদে ফেলে। পরে এসব নিরীহ মানুষদের কাছে টাকা হাতিয়ে নিয়ে তাদের জিম্মি করে রাখে। অবৈধ এমএলএম ওই প্রতিষ্ঠানটি দীর্ঘ দিন ধরে তাদের এই কর্মকান্ড চালিয়ে আসছিলো বলে খবর পায় র‌্যাব। পরে আজ সকালে সেখানে অভিযান চালিয়ে প্রতিষ্ঠানটির ১২ জন প্রতারককে আটক করা হয়। এসময় ১০৪ জন সাধারণ মানুষকে ওই প্রতারকদের জিম্মি দশা থেকে উদ্ধার করে র‌্যাব।

র‌্যাব-৪ (সিপিসি-২) এর কোম্পানী কমান্ডার মেজর শিবলী মোস্তফা জানান, আটকদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের পর তাদের আশুলিয়া থানা পুলিশের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে। এই প্রতারক চক্রের সাথে জড়িত বাকীদের আটকে অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here