আশুলিয়ায় জরিমানা করে ধর্ষণের বিচার

ছবি: রবিন, যিনি জরিমানার ১০ হাজার টাকা নিয়েছেন।
Print Friendly, PDF & Email

নিজস্ব প্রতিবেদক, আশুলিয়া:

আশুলিয়ায় নিজের মেয়েকে ধর্ষনের অভিযোগ তুলে বাবার নিকট হতে ১০ হাজার টাকা আদায় করেন স্থানীয় প্রভাবশালীর নাতী কিশোর রবিন। পরে তাকে মারধর করে এলাকা থেকে চলে যেতে বাধ্য করে। এ ঘটনায় বাড়ীর মালিক হুমায়ন ও স্থানীয় সমপদ নামের আরো দুইজন বিচারের সাথে জরিত ছিলো বলে জানা যায়।

সোমবার রাতে আশুলিয়ার কাইচাবাড়ী এলাকার হুমায়ন মিয়ার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত আন্টু (৩৫) এর গ্রামের বাড়ি নাটোর জেলার সিংরা থানার বনগ্রামে। তার মেয়ে আনিসা (১২) বর্তমানে স্থানীয় একটি গার্মেন্টেসে চাকরী করেন।

স্থানীয়রা জানান, রাতে মেয়েকে ধর্ষনের অভিযোগ তুলে মেয়ের বাবাকে বেধর মারধর করে, পরে তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করে ছেড়ে দেওয়া হয়। এ ঘটনায় বাবা আন্টুকে অনেক মারধর করার পরে মেয়ের সাথে তার কোন সম্পর্ক নাই বলে জানান, তবে তার সাথে পাশের বাড়ির ভাড়াটিয়া শিরিন (১৪) নামের এক মেয়ের সাথে সম্পর্ক আছে বলে স্বীকার করে।

এ ঘটনা মেয়ে জানায়, তার বাবার সাথে ঘরের ভিতরে ছিলো তারা, হঠাৎ করে কয়েকজন লোক এসে আমার বাবাকে ডেকে নিয়ে যায়, পরে কি হয়েছে আমি তা জানি না। মেয়ের মাও ঘটনার কিছুই জানে না বলে জানান।

অন্যদিকে পাশের বাড়ির ভাড়াটিয়া শিরিন (১৪) জানান, আমার সাথে তার কোন অনৈতিক সম্পর্ক নাই, মাঝে মাঝে আমি তার বাসায় যেতাম এতটুকু। তবে শিরিনের পাশের রুমের এক মহিলা বলেন, আন্টু মাঝে মধ্যে শিরিনের বাসায় আসতো।

এ ব্যাপারে রবিন ও বাড়ির মালিক হুমায়নের সাথে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেলেও, তারা কেউ ফোন রিসিভ করেননি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here