সাভারে গাছ কাটা সেই নারী আটক

Print Friendly, PDF & Email

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার:

আধূনিক শহুরে জীবনে একটু সবুজের স্পর্শ পাওয়ার আশায় বিভিন্ন ফ্ল্যাট বাড়ির বারান্দা, বেলকনি অথবা ছাদে টবে গড়ে তুলেন শখের বাগান। বিভিন্ন পরিবেশবাদী সংগঠন ও সরকারও উৎসাহ দিচ্ছেন বাড়ীর ছাদে কৃষি চাষ বা বাগান গড়তে। ভাড়া বাসায় বসকারীদের অনেকেই নিজের ফ্ল্যাটের খলি জায়গায় টবে লাগিয়ে থাকেন বিভিন্ন ধরনের ফুল-ফলের গাছ।

সাভারের সিআরপি রোডের এক ছাদের গাছ কাঁটার ভিডিও ও স্থির চিত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করার পরই এটি ভাইরাল হয়ে যায়। দাবী ওঠে বর্বরতার ঘটনার জন্মদাতা নারীর বিচারের।

ভিডিওতে দেখা যায়, এক নারী দা হাতে অন্য একজনের তৈরি করা ছাদবাগানের সব গাছ কেটে সাফ করে দিচ্ছেন! গাছের মালিকের আকুতি, কান্না তাকে স্পর্শ করছে না। সঙ্গে আছে তার ছেলে আর সহযোগী দল! এই অমানুষিক ঘটনায় শিউরে উঠেছে সবাই!

সুমাইয়া হাবিব নামের ভুক্তভোগী ওই নারী ফেসুবকে নিজের গাছের ওপর এমন বর্বর আচরণের ভিডিও আর বিবরণ পোস্ট করেন। একপর্যায়ে তাকে দা দিয়ে আঘাত করতে উদ্যত হন গাছ কেটে ফেলা ওই মহিলা।

সুমাইয়া তার পোস্টে লিখেছেন, ‘কখনো কি শুনছেন মানুষ গাছ অপছন্দ করে? গাছ পরিবেশ নষ্ট করে? এই মহিলার গাছ পছন্দ না। তার বক্তব্য আমাদের গাছ ছাদের পরিবেশ নষ্ট করে ফেলছে। তাই এই মহিলা আমাদের সব গাছ কেটে ফেলছে। কি অপরাধ ছিল গাছের? কি অপরাধ ছিল? কেউ বলতে পারবেন?’

‘আমার মা গাছ অনেক পছন্দ করে, তাই ছাদের এক কোণায় আমরা কিছু গাছ লাগাইছিলাম। আর এই মহিলা আমাদের সাথে শত্রুতা করে আমাদের লাগানো গাছগুলা কেটে ফেলল। এই বিল্ডিংয়ে আমরা ২টা ফ্লাট কিনেছি। সবাই যার যার ক্রয়কৃত ফ্লাটে থাকে। ছাদে সবারই অধিকার আছে। আমরা আমাদের অধিকার থেকে কিছু গাছ লাগিয়েছি ছাদের একটা কোণায়। কারণ আমরা ভাবতেও পারি নি গাছ মানুষ অপছন্দ করতে পারে। গাছ তো সৌন্দর্য বাড়ায়। আর তারা বলে আসছে আমাদের গাছ নাকি ছাদের পরিবেশ নষ্ট করে দিচ্ছে।’

এবিষয়ে সাভার মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এ.এফ.এম সায়েদ জানান, নিজেদের মধ্যে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র টবের গাছ কেটেছে। অভিযুক্ত নারীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছে।

এঘটনায় সাভার মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here