আশুলিয়ায় ভাড়াটিয়াকে হাতুড়ি পেটা

Print Friendly, PDF & Email


নিজস্ব প্রতিনিধি, আশুলিয়া এক্সপ্রেস:

আশুলিয়ায় খোরশেদা বেগম নামে এক নারী ভাড়াটিয়াকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে মাথা ফাটিয়ে দিয়েছে বাড়ির মালিক। এসময় তার ১০ বছরের শিশু কন্যা সবিতার দুই হাত ভেঙ্গে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বুধবার রাত ৯টার দিকে আশুলিয়ার বাইপাইল এলাকার গফুর মন্ডলের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

আহত খোরশেদা বেগম (৪০) ও তার শিশু মেয়ে সবিতা (১০) কে দ্রুত চিকিৎসার জন্য স্থানীয় নারী ও শিশু হাসপাতালে নিয়ে গেলে জাতীয় শ্রমিক লীগ আঞ্চলিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও গার্মেন্টস শ্রমিক শ্রমজীবী ও ভাড়াটিয়া পরিষদের উপদেষ্টা লায়ন মোঃ ইমাম হোসেনসহ গার্মেন্টস শ্রমিক শ্রমজীবী ও ভাড়াটিয়া পরিষদের সকলে মিলে তাদেরকে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পাঠিয়ে দেন।

এ ব্যাপারে আহত নারীর স্বামী মোঃ শফিকুল জানান, আমার কাছে বাড়িওয়ালা কিছু টাকা পেতো। কিসের টাকা জানতে চাইলে তিনি জানান, বাড়িওয়ালার অনেক গুলো গরু আছে সে গুলো দেখাশুনা করতো আমার ছেলে সে বাবদ কিছু টাকা পেতো, আমার মা কিছু দিন যাবৎ অসুস্থ হওয়ার করণে আমার ছেলে বাড়িতে গেছে। যার কারণে আমাকে তারা বার বার টাকার জন্য চাপ দিচ্ছিলো, আর বলতে ছিলো নয় টাকা দিবি, নইলে তোর ছেলেকে আসতে বলবি। আমার বাড়িওয়ালার ছেলের কাছ থেকে ৫ দিনের সময় নিয়েছিলাম। অন্যদিকে বাড়িওয়ালা এসে মারা মারি শুরু করে দিছে। এ সময় তার স্ত্রীকে নিয়ে সাভার উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এ ব্যাপারে শ্রমিক লীগ আঞ্চলিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও গার্মেন্টস শ্রমিক শ্রমজীবী ও ভাড়াটিয়া পরিষদের উপদেষ্টা লায়ন মোঃ ইমাম হোসেন বলেন, আমি খবর পেয়ে স্থানীয় নারী ও শিশু হাসপাতেল তাদেরকে দেখতে গিয়ে গুরুতর অবস্থায় দেখে সবার পরামর্শে তাদেরকে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে পাঠিয়ে দেই। আমি এ ধরনের নেক্কারজনক ঘটনা এর আগে কখনো দেখি না। মানুষ কিভাবে হাতুড়ি দিয়ে মানুষকে মারতে পারে। এ সময় তিনি আরো বলেন আমি এর ন্যায্য বিচারের দাবি করি। এ সময় শ্রমিক নেতা সারোয়ার হোসেন সহ আরো অনেকে হাসপাতালে উপস্থিত ছিলেন বলেও জানান তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here