বেড়েছে বিদেশগামী নারীকর্মীর সংখ্যা; ব্র্যাক

Print Friendly, PDF & Email

এক্সপ্রেস প্রতিবেদক:

২০১৫ সালের তুলনায় ২০১৬ সালে বিদেশগামী নারীকর্মীর সংখ্যা ১৪ হাজার ৩৭০ জন বৃদ্ধি পেয়েছে। ২০১৫ সালে যেখানে বিদেশগামী নারীকর্মীর সংখ্যা ছিল ১ লাখ ৩ হাজার ৭১৮ জন, সেখানে ২০১৬ সালে তা বেড়ে দাঁড়ায় ১ লাখ ১৮ হাজার ৮৮ জনে। মধ্যপ্রাচ্যসহ বিভিন্ন দেশে নারী শ্রমিকের চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় পুরুষের তুলনায় নারী অভিবাসন আনুপাতিক হারে বেড়েছে।

বৃহস্পতিবার  ঢাকা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে আয়োজিত ‘নিরাপদ অভিবাসন নিশ্চিতকরণে আমাদের করণীয়’ শীর্ষক কর্মশালায় উপস্থাপিত মূল প্রবন্ধে এ তথ্য জানানো হয়। বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা  ব্র্যাক এ কর্মশালার আয়োজন করে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সালাহ উদ্দিন। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. মজিবর রহমান এর সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্তি পুলিশ সুপার মো. মোবারক হোসেন, সিনিয়র সহকারী কমিশার ফারহানা করীম ও সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আবুল কাশেম করিম প্রমূখ। কর্মশালায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ব্র্যাকের মাইগ্রেশন কর্মসূচির প্রোগ্রাম ম্যানেজার মেরিনা সুলতানা।

নিরাপদ অভিবাসন বিষয়ে জনসচেতনতা তৈরী এবং নিরাপদ অভিবাসন নিশ্চিতকরণে সরকারি পর্যায়ের নীতিনির্ধারক, সুশীল সমাজের প্রতিনিধিসহ সংশ্লিষ্ট স্টেকহোল্ডারদের করণীয় নির্ধারণ করতে এই কর্মশালার আয়োজন করা হয়।

প্রবন্ধে নিরাপদ অভিবাসনের ক্ষেত্রে ৮টি প্রধান চ্যালেঞ্জের কথা উল্লেখ করা হয়। এরমধ্যে রয়েছে কর্মীদের চাকুরির ক্ষেত্রে দক্ষতার অভাব, অনেক ক্ষেত্রে যথাযথ ও বৈধ কাগজপত্র না থাকা, প্রণীত আইন সম্পর্কে অভিবাসীদের ধারণা না থাকা, সংশ্লিষ্ট দেশের ভাষা না  জানা,  বিদেশে বাংলাদেশি মিশনের দায়িত্ব ও কর্তব্য সম্পর্কে অজ্ঞতা, মানসিক প্রস্তুতির অভাব, নিয়োগকৃত দেশের মূল্যবোধ ও সংস্কৃতি সম্পর্কে সঠিক ধারণা না থাকা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ঢাকার জেলা প্রশাসক  মোহাম্মদ সালাহ উদ্দিন বলেন, অভিবাসন ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট সকলের জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে।  এছাড়া আগ্রহী অভিবাসীগণ যে দেশে যেতে চান সে দেশের ভাষাসহ কারিগরি বিষয়ে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে হবে। একই সঙ্গে তিনি তৃণমূল পর্যায়ে নিরাপদ অভিবাসন বিষয়ে ব্যাপক জনসচেতনতা সৃষ্টিমূলক  কার্যক্রম পরিচালনার উপর গুরুত্ব আরোপ করেন।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর তথ্য অনুযায়ী চলতি বছরের জানুয়ারি পর্যন্ত ১৬২ টি দেশে ১ কোটি বাংলাদেশী কর্মী বিভিন্ন পেশায় নিয়োজিত আছেন। এর মধ্যে নারীকর্মী মোট কর্মী গমনের ১৮.৪৬ শতাংশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here