আশুলিয়ার ঝুট গোডাউনে অগ্নিকান্ড; তিন কোটির টাকার ক্ষতি

Print Friendly, PDF & Email

এক্সপ্রেস প্রতিবেদক:

আশুলিয়ায় একটি ঝুটের গোডাউনে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের ৮ টি কাজ কাজ করছে। তবে প্রাথমিকভাবে আগুন লাগার কারন জানা যায়নি।
আজ সকালে আশুলিয়ার বাগবাড়ি সরকার মার্কেট এলাকার নাভানা গেটের পাশে এই আগুনের ঘটনা ঘটে।
ডিইপিজেড ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা যায়, স্থানীয়রা সকাল ৬টায় হঠাৎ ওই ঝুটের গোডাউন থেকে আগুন দেখতে পায়। মুহূর্তের মধ্যে আগুনের লেলিহান শিখা পুরো গোডাউনে ছড়িয়ে পড়ে। পরে স্থানীয়রা ডিইডিজেড ফায়ার সার্ভিসে খবর দিলে প্রথমে ডিইডিজেডের ৩টি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে চেষ্টা চালায়।
পরে সাভার, টঙ্গী, কালিয়কৈর থেকে আরও ৫ টি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে চেষ্টা চালায়। প্রায় চার ঘন্টা চেষ্টার পর ১০টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রন করতে সক্ষম হয়।তবে ঝুট কাপড় হওয়া ফলে আগুন থেমে থেমে জ্বলছিল, অন্যদিকে পানির সংকটের কারনে আগুন নিয়ন্ত্রন করতে সময় লাগে।
প্রায় সাড়ে ৩ বিঘা জায়গার ওপর ১০টি ঝুটের গোডাউন অগ্নিকান্ডে পুড়ে গেছে। এসব পুড়ে যাওয়া গোডাউনের মালিকরা হলেন-সিরাজুল ইসলাম, সিরাজ মাস্টার, মোস্তাফা, মোস্তাফা হোসেন, খলিল, ফারুক, ইমরান হাজী, মুকুল ও সাইফুল।
গোডাইন মালিকরা জানান, তাদের গোডাউনের সব মালামাল পুড়ে গেছে পুড়ে গেছে। যেখানে প্রায় ৩ কোটি টাকার মালামাল রয়েছে।
এ বিষয়ে জমির মালিক সাহাবুউদ্দিন জানান, গোডাউন মালিকদের গাফলিতেতে অগ্নিকা্ড ঘটেছে। তাদের বার বার বলেও ঝুঁকিপূর্ণ বৈদ্যুতিক তারের সরিয়ে নেয়নি। এমন গোডাউনের পাশেই রান্নর কাজ করত বলে অভিযোগ করেন।
ডিইপিজেড ফায়ার সার্ভিসের উপপরিচালক মামুন মাহামুদ, পানি সংকটের কারনে আগুন নিয়ন্ত্রন করতে সময় লেগেছে। প্রায় এক কিলোমিটার দূর থেকে পানি সরবরাহ করতে হয়েছে। প্রায় চার ঘন্টা পর আগুন নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম হয়েছি আমরা। প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে বৈদ্যুতিক সর্ট সাকিট থেকে এই আগুনের সূত্রপাত। তবে এ ঘটনায় কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। এছাড়া তদন্ত করে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান জানা যাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here